০২ অক্টোবর ২০২২, রবিবার, ০১:৩০:১০ অপরাহ্ন


সকাল-সন্ধ্যায় যে তাসবিহ ও দোয়া পড়তেন নবিজী (সা.)
অনলাইন ডেস্ক:
  • আপডেট করা হয়েছে : ১৬-০২-২০২২
সকাল-সন্ধ্যায় যে তাসবিহ ও দোয়া পড়তেন নবিজী (সা.) সকাল-সন্ধ্যায় যে তাসবিহ ও দোয়া পড়তেন নবিজী (সা.)


সকাল-সন্ধ্যার অন্যতম সুন্নাত আমল হলো- নবিজীর শেখানো তাসবিহ ও দোয়া পড়া। আল্লাহর প্রশংসা করা। আল্লাহর কাছে যাবতীয় অনিষ্টতা ও অকল্যাণ থেকে নিরাপত্তা কামনা করা। হাদিসে পাকে নবিজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সকাল-সন্ধ্যার তাসবিহ ও দোয়া তুলে ধরেছেন। তাসবিহ ও দোয়া হলো-

সকাল-সন্ধ্যা তাসবিহ

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেছেন, নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ভোরে উপনীত হলে বলতেন-

أَصْبَحْنَا وَأَصْبَحَ الْحَمْدُ كُلُّهُ لِلَّهِ ، لا شَرِيكَ لَهُ ، لا إِلَهَ إِلا اللَّهُ ، وَإِلَيْهِ النُّشُورُ

উচ্চারণ : ‘আসবাহনা ওয়া আসবাহাল হামদু কুল্লুহু লিল্লাহ; লা শারিকা লাহু; লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ; ওয়া ইলাইহিন নুশুর।

অর্থ : ‘আমরা ভোরে উপনীত হয়েছি এবং আল্লাহর রাজত্ব (সৃষ্টিকুল) ভোরে উপনীত হয়েছে। সব প্রশংসা আল্লাহর, তার কোনো শরিক নেই। আল্লাহ ছাড়া অন্য কোনো ইলাহ নেই এবং পুনরুত্থান তার কাছেই।

নবিজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সন্ধ্যায় উপনীত হলে বলতেন-

أَمْسَيْنَا وَأَمْسَى الْمُلْكُ لِلَّهِ ، وَالْحَمْدُ كُلُّهُ لِلَّهِ ، لا شَرِيكَ لَهُ ، لا إِلَهَ إِلا اللَّهُ ، وَإِلَيْهِ الْمَصِيرُ

উচ্চারণ : আমসাইনা ওয়া আমসাল মুলকু লিল্লাহ; ওয়ালহামদু কুল্লুহু লিল্লাহ; লা শারিকা লাহু; লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু; ওয়া ইলাইহিল মাছির।’

অর্থ : ‘আমরা সন্ধ্যায় উপনীত হয়েছি। আল্লাহর রাজত্ব সন্ধ্যায় উপনীত হয়েছে। সব প্রশংসা আল্লাহর এবং তার কোনো শরিক নেই। আল্লাহ ছাড়া কোনো ইলাহ নেই এবং তার কাছেই ফিরে যেতে হবে।’ (আবু দাউদ, তিরমিজি, নাসাঈ, ইবনে মাজাহ, মুসনাদে আহমাদ, ইবনে হিব্বান, নাসাঈ)

অনিষ্ট থেকে বাঁচতে সকাল–সন্ধ্যার দোয়া

রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি সন্ধ্যায় তিনবার বলবেন-

بِسْمِ اللَّهِ الَّذِي لَا يَضُرُّ مَعَ اسْمِهِ شَيْءٌ، فِي الْأَرْضِ، وَلَا فِي السَّمَاءِ، وَهُوَ السَّمِيعُ الْعَلِيمُ

উচ্চারণ : ’বিসমিল্লাহিল্লাজি লা ইয়াদুররু মাআসমিহি শাইউন ফিল আরদি ওয়া লা ফিস-সামায়ি ওয়া হুয়াস সামিউল আলিম।’

অর্থ : ‘আল্লাহর নামে, যার নামের বরকতে আসমান ও জমিনের কোনো বস্তুই ক্ষতি করতে পারে না, তিনি সর্বশ্রোতা ও মহাজ্ঞানী।’

সকাল হওয়া পর্যন্ত তার উপর হঠাৎ কোনো বিপদ আসবে না। আর যে তা সকালে তিনবার বলবে সন্ধ্যা পর্যন্ত তার উপর হঠাৎ কোনো বিপদ আসবে না।’ (আবু দাউদ, তিরমিজি, ইবনে মাজাহ, মুসনাদে আহমাদ)

সুতরাং মুমিন মুমিন মুসলমানের উচিত, সকাল-সন্ধ্যায় নবিজীর শেখানো তাসবিহ এবং দোয়া বেশি বেশি পড়া। সুন্নাতের উপর যথাযথ আমল করা।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে তার প্রশংসা এবং অনিষ্টতা থেকে নিরাপদ থাকতে হাদিসে বর্ণিত  দোয়া পড়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।