০৪ মার্চ ২০২৪, সোমবার, ০৯:৪৫:১৮ পূর্বাহ্ন


ফাঁকা চেম্বারে যুবতীকে জড়িয়ে ধরে চুমু !
সুমাইয়া তাবাস্সুম:
  • আপডেট করা হয়েছে : ১৭-০৯-২০২৩
ফাঁকা চেম্বারে যুবতীকে জড়িয়ে ধরে চুমু  ! ফাঁকা চেম্বারে যুবতীকে জড়িয়ে ধরে চুমু !


ফাঁকা চেম্বারে  যুবতীকে জোর করে চুমু খাওয়ার চেষ্টা করেন বলেও অভিযোগ উঠেছে গ্রাম্য চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগ চিকিৎসক তথা গাইঘাটা পঞ্চায়েত সমিতির প্রাক্তন সভাপতিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

শনিবার সন্ধা সাতটায় বনগাঁর গাইঘাটা থানা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে উত্তেজিত হয়ে পড়ে স্থানীয় বাসিন্দারা। দীর্ঘ সময় ওই চিকিৎসকের চেম্বারের সামনে জড়ো হয়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে। অভিযুক্তর শাস্তির দাবিতে যুবতী (২৪) থানার দারস্থ হন। অভিযুক্ত তৃণমূল নেতার নাম সুব্রত সরকার। যুবতী ও তাঁর পরিবার জানিয়েছে, ছেলেবেলা থেকেই ওই যুবতী অভিযুক্ত সুব্রত সরকারের কাছে চিকিৎসা করাতেন। তিনি তাঁদের পারিবারিক চিকিৎসক তিনি।

যুবতী জানিয়েছেন, জ্বরে ভুগছিলেন তিনি। সন্ধায় ওই চিকিৎসকের কাছে গিয়েছিলেন। সেই সময় চেম্বারে কেউ ছিল না। অভিযোগ, ওষুধ নিয়ে বেরনোর সময় হঠাৎই অভিযুক্ত তাঁকে পিছন থেকে জড়িয়ে ধরেন। জোর করে চুমু খাওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় যুবতী বেরতে গেলে তাঁকে জোর জবরদস্তি করতে থাকেন। যুবতী কোনওভাবে বেরিয়ে এসে বাড়িতে সমস্ত ঘটনার কথা জানিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন। খবর পেয়ে সুব্রত সরকারের চেম্বারের সামনে ভিড় করে গ্রামের লোকেরা ৷ ওই অভিযুক্ত চিকিৎসকের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়। যুবতীর পরিবার ও প্রতিবেশীদের দাবি, “অভিযুক্ত সুব্রত সরকার এর আগেও এমন বেশ কিছু ঘটনা ঘটিয়েছে ৷ অর্থ ও ক্ষমতা জোরে ঘটনাগুলো ধামাচাপা দিয়েছে ৷ এবার তাঁর শাস্তি চাই।