০৫ মার্চ ২০২৪, মঙ্গলবার, ০৭:৪১:২৩ পূর্বাহ্ন


স্বপ্ন হবে সত্যি! ঘুমের মধ্যেই হবে রেকর্ডিং, অসাধ্য সাধন জাপানি বিজ্ঞানীদের
অনলাইন ডেস্ক:
  • আপডেট করা হয়েছে : ২৬-১০-২০২৩
স্বপ্ন হবে সত্যি! ঘুমের মধ্যেই হবে রেকর্ডিং, অসাধ্য সাধন জাপানি বিজ্ঞানীদের স্বপ্ন হবে সত্যি! ঘুমের মধ্যেই হবে রেকর্ডিং, অসাধ্য সাধন জাপানি বিজ্ঞানীদের


যদি এমন একটি ডিভাইস থাকত, যা দ্বারা স্বপ্নকে রেকর্ড করা যেতে পারত। কিংবা ফিরিয়ে দিতে পারত স্বপ্নগুলিকে। তবে, এই অসাধ্য সাধন করে দেখিয়েছেন জাপানের একদল গবেষক। তৈরি করেছেন একটি স্বপ্ন রেকর্ড করা ডিভাইস। স্বপ্নের রাজ্য সবসময় একটি রহস্যময় জগত। যেখানে প্রতিটি মানুষের অবচেতন মন অবস্থান করে থাকে।

কিন্তু আপনি যাতে এই স্বপ্নগুলিকে সিনেমার মতো দেখতে পারেন, তারই ব্যবস্থা করেছেন জাপানি গবেষকরা। নিরলস গবেষণার শেষে একটি যুগান্তকারী ডিভাইস তৈরি করেছেন তারা। নতুন এই ডিভাইসের মাধ্যমে ভিডিও সিকোয়েন্সে স্বপ্ন রেকর্ড করতে এবং প্লে ব্যাক করতে সক্ষম হবেন সকলে। জাপানি গবেষকদের দ্বারা তৈরি স্বপ্ন-রেকর্ডিং ডিভাইসটি স্বপ্নের রহস্যময় রাজ্য অণ্বেষণের জন্য অভূতপূর্ব সম্ভাবনার দ্বার উন্মুক্ত করবে মনে করা হচ্ছে। নিউরোইমেজিং এবং কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার অগ্রগতির উপর ভিত্তি করে ডিভাইসটি তৈরি করা হয়েছে। এটি জটিল স্নায়ু ক্রিয়াকলাপকে ক্যাপচার করে এবং সেগুলি আকর্ষণীয় ভিজ্যুয়াল উপস্থাপনায় অনুবাদ করে।

সেই সঙ্গে অত্যাধুনিক অ্যালগরিদমগুলির সাথে মস্তিষ্কের ইমেজিং কৌশলগুলিকে একত্রিত করে থাকে। জাপানি গবেষকরা স্বপ্নের ভিজ্যুয়াল বিষয়বস্তু ডিকোডিংয়ে উল্লেখযোগ্য সাফল্য পেয়েছে। এর ফলে স্বপ্নগুলিতে ভিডিও সিকোয়েন্সে রেন্ডার করতে সক্ষম ডিভাইস তৈরি করা হয়েছে। ডিভাইসটি আপনার স্বপ্নকে প্লেব্যাকও করতে পারে। ঘটনাগুলি ব্যাখ্যা করে যে এই স্বপ্ন-রেকর্ডিং ডিভাইসটি কার্যকরী চৌম্বতীয় অনুরণন ইমেজিং তৈরি করে। সেই সঙ্গে মস্তিষ্কের কার্যকলার পরিমাপ করতে এবং নির্দিষ্ট স্বপ্নের বিষয়বস্তুর সাথে সম্পর্কিত নিদর্শন সনাক্ত করে থাকে। মেশিন লাইনিং অ্যালগরিদমগুলি তারপর প্যাটার্নগুলিকে ভিজ্যুয়াস ইমেজে পুনর্গঠন করে, স্বপ্নের প্লেব্যাক ভিডিও তৈরি করতে সক্ষম হয়।

সেই সঙ্গে ডিভাইসটি স্বপ্নের বিষয়গত অভিজ্ঞতা এবং উদ্দেশ্যমূলক ভিজ্যুয়াল উপস্থাপনার মধ্যে ব্যবধান দূর করতে নিউরোল নেটওয়ার্কের শক্তি ব্যবহার করে। জানা গেছে স্বপ্ন-রেকর্ডিংয়ের ডিভাইসটির নির্মাণ কাজ এখন প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। গবেষকরা ভিডিওগুলির নির্ভুলতা এবং রেজোলিউশন যাতে আরও ভালো পাওয়া যায়, তার গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন। তৈরি কাজ সম্পন্ন হলে, প্রযুক্তির অগ্রগতির সঙ্গে সঙ্গে চেতনা এবং মানুষের মনের জটিল কাজগুলি বোঝার ক্ষেত্রে বিপ্লব ঘটাতে সক্ষম হবে বলে মনে করছে বৈজ্ঞানীকদের একাংশ। নতুন এই ডিভাইসের মাধ্যমে মনোবিজ্ঞান, নিউরোসায়েন্স এবং সৃজনশীল প্রচেষ্টার সম্ভাব্য অ্যাপ্লিকেশনগুলিকে হাইলাইট করে৷ স্বপ্নগুলি ক্যাপচার ও বিশ্লেষণ করে মস্তিষ্কের আভ্যন্তরীণ কাজের একটি মূল্যায়ন অর্জন করা যাবে। সূত্র: ইউনিল্যাড।