২৫ জুন ২০২৪, মঙ্গলবার, ০৩:৪৫:২৪ পূর্বাহ্ন


রাজশাহী মহানগরীতে পুলিশ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণা: ওয়াকিটকিসহ প্রতারক গ্রেফতার
মাসুদ রানা রাব্বানী, রাজশাহী:
  • আপডেট করা হয়েছে : ২৬-০৩-২০২২
রাজশাহী মহানগরীতে পুলিশ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণা: ওয়াকিটকিসহ প্রতারক গ্রেফতার রাজশাহী মহানগরীতে পুলিশ কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণা: ওয়াকিটকিসহ প্রতারক গ্রেফতার


রাজশাহী মহানগরীতে পুলিশের এসআই পরিচয়ে টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে ১ প্রতারককে গ্রেফতার করেছে রাজপাড়া থানা পুলিশ। এসময় তার কাছ থেকে ৩টি ওয়াকিটকি সেট, ১ টি চার্জার, প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ২টি মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা উদ্ধার হয়। গ্রেফতার প্রতারক মোঃ জাকির হোসেন (৫২), নাটোর জেলার নলডাঙ্গা থানার হলুদঘর গ্রামের মোঃ সুরমান আলীর ছেলে।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন, নগর পুলিশের মূখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (সদর), গোলাম রুহুল কুদ্দুস।

তিনি জানান আজিজুর রহমানের মহানগরীর মতিহার থানার বিনোদপুর চৌদ্দপাই (বিহাস গেট) এলাকায় খান অটো এন্ড ব্যাটারী হাউজ নামের একটি দোকান রয়েছে। 

গত (২৪ মার্চ) বেলা ১১ টায় আজিজুর রহমানের দোকানে এক ব্যক্তি নিজেকে রাজশাহী জেলা পুলিশ লাইন্সে কর্মরত পুলিশের এসআই মোঃ মোজাহার পরিচয় দিয়ে বলে, পুলিশ লাইন্সে অনেক পরিত্যাক্ত গাড়ির পুরাতন ব্যাটারী রয়েছে। সে গুলো ১২৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি করা হবে। এখন ৫০ হাজার টাকা দিয়ে পুলিশ লাইন্স থেকে ব্যাটারী গুলো বুঝে নিয়ে অবশিষ্ট টাকা বিকেলে দিলে হবে বলে জানায়।

এ কথা শুনে আজিজুর রহমান তার দোকানের মিস্ত্রী মোঃ আমিনুল ইসলামকে ৫০ হাজার টাকাসহ অটোরিক্সা যোগে তার সাথে পুলিশ লাইন্সে পাঠান। এসআই পরিচয়দানকারী আসামী সিএন্ডবির মোড়ে পৌঁছিয়ে কৌশলে আমিনুলের কাছ থেকে তার মোবাইল নম্বর ও টাকা নিয়ে সেখানে নামিয়ে দেয়। সেখানে আমিনুলকে দাঁড়াতে বলে সে এসপি স্যারের কাছ ভাউচার নিয়ে আসি বলে সাহেব বাজারের দিকে চলে যায়।

কিছুক্ষণ পর প্রতারক মোবাইল করে আমিনুলকে পুলিশ লাইন্সের গেটে যেতে বলে। আমিনুল কথামত পুলিশ লাইন্সের গেটে গিয়ে অপেক্ষা করে। পরে তারে দেখা না পেয়ে মোবাইলে ফোন দিলে মোবাইল বন্ধ পায়।

পরে সে বুঝতে পারে প্রতারণার শিকার হয়েছে। এ ব্যপারে মহানগরীর রাজপাড়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী আজিজুর। অভিযোগে প্রেক্ষিতে রাজপাড়া থানায় একটি নিয়মিত মামলা রুজু হয়।

এরপর ২৫ মার্চ ২০২২ রাত পৌনে ১১ টায় আরএমপি সাইবার ক্রাইম ইউনিটের সহকারি পুলিশ কমিশনার উৎপল কুমার চৌধুরী পিপিএম ও তাঁর দলের দেয়া তথ্য প্রযুক্তি বিশ্লেষণ এবং সিসি ক্যামেরার ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনা করে রাজপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের সার্বিক দিক নির্দেশনায় এসআই কাজল কুমার নন্দী ও সঙ্গীয় ফোর্স গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে নাটোর জেলার নলডাঙ্গা থানার হলুদঘর গ্রামের বাড়ী থেকে আসামী মোঃ জাকির হোসেনকে গ্রেফতার করে।

এসময় আসামী কাছ থেকে ৩টি ওয়াকিটকি সেট, ১ টি চার্জার, প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ২ টি মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা উদ্ধার হয়।

গ্রেফতারকৃত আসামীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।

শনিবার (২৬) সকালে তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

রাজশাহীর সময় / এম জি