২৯ মে ২০২৪, বুধবার, ০৪:১৬:৩৮ পূর্বাহ্ন


নারী ক্রিকেট ইতিহাসের রেকর্ডময় এক ম্যাচ উপহার দিলো শ্রীলঙ্কা
ক্রীড়া ডেস্ক
  • আপডেট করা হয়েছে : ১৮-০৪-২০২৪
নারী ক্রিকেট ইতিহাসের রেকর্ডময় এক ম্যাচ উপহার দিলো শ্রীলঙ্কা ছবি: সংগৃহীত


নারী ক্রিকেট ইতিহাসের রেকর্ডময় এক ম্যাচ উপহার দিলো শ্রীলঙ্কা ও দক্ষিণ আফ্রিকা। লঙ্কানরা প্রথমবারের মতো মেয়েদের ক্রিকেটে তিনশ রান তাড়ায় ম্যাচ জিতেছে। সেঞ্চুরি করেছেন দুই দলের দুই অধিনায়কই। সবমিলিয়ে রেকর্ডে ভরপুর ম্যাচে প্রোটিয়াদের হারিয়ে ইতিহাস গড়েছে শ্রীলঙ্কা। প্রোটিয়া অধিনায়ক লরা উলভার্টের হার না মানা ১৮৪ রানের জবাব লঙ্কান অধিনায়ক চামারি আতাপাত্তু দিয়েছেন অপরাজিত ১৯৫ রানের ইনিংস দিয়ে।

দক্ষিণ আফ্রিকার পচেফস্ট্রুমে গতকাল (বুধবার) ওয়ানডে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল দু’দল। আগে ব্যাট করে নির্ধারিত ওভারে প্রোটিয়া মেয়েদের সংগ্রহ ছিল ৫ ‍উইকেটে ৩০১। মেয়েদের ওয়ানডে ক্রিকেটে এর আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ২৮৯ রান তাড়া করে জিতেছিল অস্ট্রেলিয়া। তবে লঙ্কান মেয়েরা আরও ছাড়িয়ে গেলেন অজিদের। প্রোটিয়াদের দেওয়া লক্ষ্য তারা ৩৩ বল এবং ৬ উইকেট হাতে রেখেই পেরিয়ে যায়।

এক ম্যাচে দু’দলের অধিনায়কের মিলিত রান ৩৭৯! ছেলে অথবা মেয়েদের ওয়ানডে ক্রিকেটে এমন ঘটনা আগে কখনও দেখা যায়নি। দুই দলনেতার অবিশ্বাস্য ডুয়েলে শেষ হাসি হাসেন আতাপাত্তু। তিনি শ্রীলঙ্কার হয়ে মেয়েদের ওডিআই ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের ব্যক্তিগত ইনিংস খেলেন। ভাঙেন নিজের পুরোনো রেকর্ড। মেয়েদের ওয়ানডে ক্রিকেটের সার্বিক ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ রানের ব্যক্তিগত ইনিংস খেলেছেন আতাপাত্তু। যার মাধ্যমে সবচেয়ে বেশি রান তাড়া করে জয়ের রেকর্ড গড়তে সাহায্য করেন শ্রীলঙ্কাকে। উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, রান তাড়া করতে নামা দলের হয়ে সর্বকালের সেরা ইনিংস খেলেন চামারি আতাপাত্তু।

এদিন শুধু রান তাড়ার ইতিহাসই হয়নি, রেকর্ড হয়েছে আরও একগাদা। আতাপাত্তুর ১৯৫ রানের ইনিংস খেলেছেন ১৩৯ বলে। অপরাজিত ম্যাচে তিনি ২৬ চার ও আধ ডজন ছক্কা হাঁকিয়েছেন। যা নারী ওয়ানডের ইতিহাসে রান তাড়ায় সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস। রান তাড়ায় দেড়শ ছুঁতে পেরেছিলেন আগে কেবল একজনই। ২০১৭ সালে ১৫২ রানের ইনিংস খেলেছিলেন অস্ট্রেলিয়ার মেগ ল্যানিং।

ছেলে-মেয়ে মিলিয়েই ওয়ানডেতে রান তাড়ায় বড় ইনিংস আছে আর একটি, গত বিশ্বকাপে ২০১ রানের যে ইনিংস খেলেছেন অস্ট্রেলিয়ার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। এছাড়া নারী ওয়ানডেতে ১৭৫ রান ছোঁয়া ইনিংস একাধিকবার খেলা প্রথম ব্যাটারও আতাপাত্তুই। ২০১৭ বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে তিনি করেছিলেন ১৭৮। রান তাড়ায় সবচেয়ে বেশি ২৬ চারের রেকর্ডও এখন আতাপাত্তুর। আগের রেকর্ড ছিল ল্যানিংয়ের, মারেন ২১ চার।

অবিশ্বাস্য বিষয় হচ্ছে– আতাপাত্তুর এটি নবম ওয়ানডে সেঞ্চুরি। অথচ শ্রীলঙ্কার আর কোনো ব্যাটার এখন পর্যন্ত কোনো সেঞ্চুরিই করতে পারেননি। বিশ্বরেকর্ডে আতাপাত্তুর ওপরে আছেন মেগ ল্যানিং (১৫) ও সুজি বেটস (১৩)।

অন্যদিকে, লরা উলভার্ট ১৮৪ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংসের রেকর্ড নিজের করে নিয়েছেন। তাদের হয়ে আগের সর্বোচ্চ ছিল জোমারি লগটেনবার্গের ১৫২। আরেকটি রেকর্ড নিয়ে অবশ্য খুশি খুব একটা হওয়ার কথা নয় উলভার্টের। হেরে যাওয়া ম্যাচে সবচেয়ে বড় ব্যক্তিগত ইনিংসও এখন এটিই। ফলে অনাকাঙ্ক্ষিত রেকর্ডটি থেকে মুক্তি পেয়েছে আতাপাত্তুর ১৭৮ রানের আগের এক ইনিংস। আতাপাত্তু ও উলভার্ট মিলেও নাম তুলেছেন রেকর্ড বইয়ে। ছেলে-মেয়ে মিলিয়েই প্রথমবার একই ওয়ানডেতে ১৭৫ ছোঁয়া ইনিংস হলো দুটি।