০২ অক্টোবর ২০২২, রবিবার, ১২:১৭:০১ অপরাহ্ন


সুইডেন, ফিনল্যান্ডের ন্যাটোতে যোগদানের ব্যাপারে সম্মত তুরস্ক
আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
  • আপডেট করা হয়েছে : ২৯-০৬-২০২২
সুইডেন, ফিনল্যান্ডের ন্যাটোতে যোগদানের ব্যাপারে সম্মত তুরস্ক সুইডেন, ফিনল্যান্ডের ন্যাটোতে যোগদানের ব্যাপারে সম্মত তুরস্ক


সুইডেন এবং ফিনল্যান্ডের ন্যাটোর সদস্যপদ পাওয়ার আবেদনে সমর্থন দিতে রাজি হয়েছে মুসলিম ন্যাটো সদস্য তুরস্ক।  

প্রাথমিকভাবে নর্ডিক এই দেশ দুটির পশ্চিমা সামরিক জোটে যোগদানের ব্যাপারে  বিরোধিতা করলেও, অবশেষে সম্মত হলো দেশটি। 

কুর্দি জঙ্গিদের প্রতি ইতিবাচক মনোভাবের কারণে সুইডেন ও ফিনল্যান্ডের ন্যাটোতে যোগদানের বিরোধিতা করে আসছিল তুরস্ক। এমনকি, তুরস্কের সমর্থন ছাড়া সুইডেন ও ফিনল্যান্ড ন্যাটোতে যোগ দিতে পারতো না।

এদিকে, রাশিয়া নর্ডিক এই দেশ দুটির ন্যাটোতে যোগদানের বিরোধিতা করে এবং পশ্চিমাদের প্রতিরক্ষা সামরিক এই জোটের সম্প্রসারণের অজুহাতেই দেশটি ইউক্রেনে সামরিক অভিযান চালায়। 

তবে এক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে, রাশিয়ার সামরিক অভিযানের পদক্ষেপটি কিছুটা বিপরীত ফল বয়ে এনেছে। 

সুইডেন, ফিনল্যান্ড ও তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা এক যৌথ নিরাপত্তা চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছেন, যা তুরস্কের উদ্বেগের সমাধান এনে দিয়েছে। মূলত এ কারণেই দেশ দুটির ন্যাটোতে যোগদানের ব্যাপারে সম্মত হয়েছে তুরস্ক।

ন্যাটো প্রধান জেনস স্টলটেনবার্গ জানান, সন্দেহভাজন জঙ্গিদের তুরস্কে প্রত্যর্পণের অনুরোধে কাজ করতে সম্মত হয়েছে সুইডেন। সেইসঙ্গে নর্ডিক এই দেশ দুটি তুরস্কের ওপর থেকে অস্ত্র বিক্রয়ের নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার ব্যাপারেও সম্মত হয়েছে। 

ফিনল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট নিনিস্তো বলেন, "একে অপরের নিরাপত্তা হুমকির বিরুদ্ধে নিজেদের পূর্ণ সমর্থন দিতে তিন দেশই যৌথ স্মারকলিপিতে স্বাক্ষর করেছে।" 

সুইডেনের প্রধানমন্ত্রী ম্যাগডালেনা অ্যান্ডারসন এটিকে ন্যাটোর জন্য একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ হিসেবে উল্লেখ করেছেন। 

এদিকে, তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ানের কার্যালয় থেকে বলা হয়েছে, সুইডেন এবং ফিনল্যান্ডের কাছ থেকে তুরস্ক 'যা চেয়েছিল, তা পেয়েছে'।

ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের প্রতিক্রিয়ায় গেলো মে মাসে এই দুই নর্ডিক দেশ ন্যাটোতে যোগদানের ইচ্ছা প্রকাশ করে। তবে সেখানে বাধা হয়ে দাঁড়ায় আরেক ন্যাটো সদস্য তুরস্ক। কুর্দি সন্ত্রাসবাদে ইতিবাচক মনোভাব দেখানো, সন্ত্রাসীদের ফিরিয়ে না দেওয়াসহ তুরস্কের ওপর অস্ত্র বিক্রির নিষেধাজ্ঞা ইত্যাদি বিষয় সামনে নিয়ে আসে দেশটি। অবশেষে আলোচনা ও চুক্তির মাধ্যমে বিষয়গুলো সমাধান হওয়ায় নর্ডিক দেশ দুটির ন্যাটোতে যোগ দেওয়ার ব্যাপারে সম্মত হলো তুরস্ক। সূত্র: বিবিসি