০৬ ডিসেম্বর ২০২২, মঙ্গলবার, ০১:৩৯:৩৮ অপরাহ্ন


যুক্তরাষ্ট্রে ফোবানা থেকে ৪ বিশৃঙ্খলাকারীকে ৫ বছর বহিষ্কার
নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি
  • আপডেট করা হয়েছে : ০৩-০৭-২০২২
যুক্তরাষ্ট্রে ফোবানা থেকে ৪ বিশৃঙ্খলাকারীকে ৫ বছর বহিষ্কার বাঁম থেকে- আতিকুর রহমান, বেদারুল ইসলাম বাবলা, জাকারিয়া চৌধুরী এবং ড. রফিক খান


অবশেষে ফেডারেশন অব বাংলাদেশি অ্যাসোশিয়েশন্স ইন নর্থ আমেরিকা (ফোবানা) কমিটি থেকে ৪ জন বিশৃঙ্খলাকারী সদস্যকে ৫ বছরের জন্য বহিস্কার করা হয়েছে। ফোবানা সম্মেলন বিরোধী নানা কর্মকান্ডে জড়িত থাকার অপরাধে বৃহস্পতিবার (৩০ জুন) ফোবানার কেন্দ্রীয় কমিটির একটি গুরুত্বপূর্ণ সভায় সংবিধান অনুযায়ী গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যদের ভোটে ৪ জন বিশৃঙ্খলাকারী সদস্যকে ৫ বছরের জন্য বহিষ্কার করা হয়। ফোবানা চেয়ারম্যান রেহান রেজা ও এক্সিকিউটিভ সেক্রেটারি মাসুদ রব চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।  

ফোবানা কমিটি থেকে বহিস্কৃতরা হলেন-আতিকুর রহমান- সাবেক চেয়ারপারসন, বেদারুল ইসলাম বাবলা-সাবেক চেয়ারপারসন, জাকারিয়া চৌধুরী- সাবেক চেয়ারপারসন এবং ড. রফিক খান-সাবেক জয়েন্ট সেক্রেটারি। এছাড়া আরও পাঁচজন সদস্যকেও ফোবানা বিরোধী কার্যক্রমে সম্পৃক্ততা, অসদাচরণ এবং ফোবানার সুনাম ক্ষুণ্ণ করার জন্য আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে। যাদের কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে, তারা হলেন-আবুল ইব্রাহিম, কবির কিরণ, এস এম লতিফুর রেজা তুষার, জাহিদ হাসান পিন্টু এবং সৈয়দ হোসেন বাবু। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সদুত্তর না পেলে এই চার জন সদস্যকেও ৫ বছরের জন্য ফোবানা থেকে বহিষ্কার করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয় সাম্প্রতি ফোবানা বিরোধী এসব সাবেক নেতৃবৃন্দ একটি ভূয়া আহবায়ক কমিটি গঠনের নাম করে আগামী সেপ্টেম্বর ২-৪ তারিখে শিকাগোতে অনুষ্ঠিতব্য ৩৬তম ফোবানা সম্মেলনকে পন্ড করার জন্য নানা কুৎসা রটিয়ে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে প্রবাসী বাঙালিদের মাঝে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন।

উল্লেখ্য যে, বিগত এক বছর আগে থেকেই ফোবানার সাবেক চেয়ারপারসন জাকারিয়া চৌধুরীর নেতৃত্বে ফোবানাকে বিভক্ত করার ষড়যন্ত্র শুরু হয়, যে ষড়যন্ত্রে ফোবানার সাবেক নেতা বেদারুল ইসলাম বাবলাও জড়িত ছিলেন। এছাড়া সম্প্রতি ফোবানার কেন্দ্রীয় কমিটির সভা পন্ড করার জন্য পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী এসব নেতৃবৃন্দ কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে অগ্রহণযোগ্য আচরণ করায় তাদের মাইক্রোফোনে বন্ধ করা দেয়া হয় সঙ্গত কারণেই। শুধু তাই নয়, এইসব নেতৃবৃন্দ ফোবানা থেকে সম্প্রতি বহি:স্কৃত জি আই রাসেল এবং শিব্বির আহমেদকে ফোবানায় পুনর্বহাল করার জন্য মরিয়া হয়ে উঠেন এবং সে কারণে এইসব বিভক্তি ও ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হন এবং অসাংবিধানিকভাবে কেন্দ্রীয় কমিটিকে বাতিল ঘোষণা করে স্বঘোষিত আহবায়ক কমিটি গঠন করেন।    

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয় ফোবানা বিরোধী এই কুচক্রী মহল শিকাগোতে অনুষ্ঠিতব্য আসন্ন ফোবানা সম্মেলনকে বাতিল ঘোষণা করে ক্যালিফোর্নিয়ায় ফোবানা সম্মেলন করার ঘোষণা দিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধম্যে, যা শুধুমাত্র ফোবানার বিরুদ্ধচারণ ও সংবিধান বিরোধীই নয়, এটা স্বার্থানেষী ব্যর্থ নেতৃত্বের বিব্রতকর, লজ্জাজনক বিষয় এবং তাদের নেতৃত্বের কদর্যতা, হীনমন্যতা এবং দুর্বলতার বহিঃপ্রকাশ। মূলতঃ আসন্ন ৩৬তম ফোবানা সম্মেলন ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের শিকাগো শহরেই নির্ধারিত তারিখে (সেপ্টেম্বর ২-৪, লেবার ডে উইকএন্ড) অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এবং ফোবানা সম্মেলনের প্রস্তুতি পূর্ণ উদ্যমে এগিয়ে চলছে।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে অতি সাম্প্রতিক প্রাপ্ত তথ্য থেকে প্রমাণিত হয়েছে যে ড: রফিক খান অনৈতিকভাবে, অবৈধভাবে ফোবানার রেজিস্ট্রেশন ওয়েবসাইটে গিয়ে  ফোবানার বতর্মান কার্যকরী পরিষদের মূল এক্সেকিউটিভ সদস্যদের নাম পরিবর্তন করে ভুয়া নেতৃবৃন্দের নাম বসিয়ে তা পরিবর্তন করেছেন, যা অত্যন্ত গর্হিত এবং লজ্জাজনক একটি কাজ, যা আইনত একটি অপরাধ বা সাইবার ক্রাইম এবং ডিস্ট্রিক্ট অফ কলম্বিয়া সেক্রেটারি অফ স্টেট এর বর্ণিত আইন অনুযায়ী এ অপরাধের কারণে রফিক খানের ৬ মাসের জেল ও আথিক জরিমানা হতে পারে এবং এই মর্মে তাদের একটি 'শো কজ নোটিশ' বা কারণ দর্শানোর নোটিশ পাঠানো হয়েছে। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তুতিও এগিয়ে চলছে।

ফোবানা বিরোধী এসব কুচক্রী মহল সামাজিক মাধ্যমে যে সব ভিত্তিহীন সংবাদ প্রচার করেছেন এবং করে যাচ্ছেন, তা সম্পূর্ণ ভুয়া এবং অসত্য। ফোবানার কেন্দ্রীয় কমিটি এখনো ফোবানার সংবিধান অনুযায়ী বহাল রয়েছে এবং ফোবানার সকল কার্যক্রম অব্যাহত রাখার জন্য ফোবানার বর্তমান কেন্দ্রীয় কমিটি অটল ভূমিকা পালন করে যাবে।

চলতি বছরের সেপ্টেম্বর ২-৪ তারিখে ৩৬তম ফোবানা সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ইলিনয় অঙ্গরাজ্যের শিকাগো শহরে। স্বাগতিক সংগঠন হিসেবে কাজ করছেন ‘বাংলাদেশ অ্যাসোশিয়েশন্স অব শিকাগোল্যান্ড’। সাম্পতি গণমাধ্যমে ফোবানা বিরোধী উক্ত কূচক্রিমহলের ভুয়া তথ্য ও সংবাদে বিভ্রান্ত না হবার জন্য আহবান জানান ফোবানা কর্তৃপক্ষ।

যে কোন তথ্য বা বিস্তারিত বিবরণের জন্য বা বিজ্ঞপ্তিতে প্রকাশিত বিষয়সমূহের যে কোন প্রমান বা বাড়তি তথ্যের জন্য ফোবানা কেন্দ্রীয় কমিটির চেয়ারপারসন রেহান রেজা এবং এক্সেকিউটিভ সেক্রেটারি মাসুদ চৌধুরীর সাথে যোগাযোগ করার জন্য সকলকে অনুরোধ করা হয়েছে। 

রাজশাহীর সময়/এম